পাবনায় সোনালী ব্যাংকের ভেতর থেকে এক গ্রাহকের তিন লাখ টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছে প্রতারক চক্র। আজ রোববার বেলা পৌনে ১১টার দিকে ব্যাংকের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সাধারণ গ্রাহকদের মধ্যে ক্ষোভ ও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, পাবনা বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা রোকোনুজ্জামান দুলাল আজ বেলা পৌনে ১১টার দিকে একটি হাতব্যাগে করে তিন লাখ টাকা নিয়ে জেলায় সোনালী ব্যাংকের প্রধান শাখায় যান। ব্যাংকের হেল্প ডেস্কে দাঁড়িয়ে তিনি জমা স্লিপ লিখছিলেন। এ সময় ব্যাংকের ভেতরে এক ব্যক্তি তাঁকে বলেন, আপনার টাকা পড়ে গেছে। দুলাল নিচের দিকে তাকালে প্রতারক চক্র তাঁর টাকার ব্যাগ নিয়ে চম্পট দেয়। এ ঘটনার পর বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ এসে ব্যাংকের ক্লোজ সার্কিট (সিসি টিভি) ক্যামেরার ফুটেজ নিয়ে যায়।

সোনালী ব্যাংক পাবনা প্রধান শাখার সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) মো. বিন কাশিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি জানার পর তিনি পুলিশকে অবহিত করেছেন। পুলিশ এসে কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিসি টিভির ফুটেজ নিয়ে গেছে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুর রাজ্জাক বলেন, বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তবে কেউ অভিযোগ না করায় কোনো ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি। অভিযোগ দিলে মামলা গ্রহণ করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনালী ব্যাংক, পাবনা প্রধান শাখার ভেতরে মাঝে মধ্যেই টাকা গায়েবের ঘটনা ঘটে। গত এক বছরে অন্তত পাঁচটি ঘটনায় গ্রাহকের ২০ লাখ টাকা গায়েব বা ছিনতাই হয়ে গেছে। সোনালী ব্যাংক পাবনা প্রধান শাখার বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীর যোগসাজশে প্রতারক চক্র এ ঘটনা ঘটাচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here