পাবনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বর্ষবরণ উৎসব পালিত হবে

0
21

পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো বলেছেন- পাবনার মানুষ সাস্কৃতিক মনা, ভালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বা বিনোদনের আয়োজন করলে সর্বজনীন ভাবে উপভোগ করবে। তারপর সেই বিনোদন যদি হয় বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে তাহলে এর সাথে আরও যোগ হবে নতুন মাত্রা।

বর্তমান সরকার নববর্ষ উপলক্ষে সরকারি কর্মকর্তাদের শতকরা ২০ ভাগ উৎসব ভাতা দিয়েছে এর প্রেক্ষিতে এবার আরও উৎসব মুখর হয়ে উঠবে নববর্ষ বরণ।

এসব বিষয় মাথায় নিয়েই এবার পাবনা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে পাবনার সকল প্রতিষ্ঠান, সংগঠন এবং ব্যাক্তিদের সমন্বয়ে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ব্যতিক্রমভাবে বাংলা বর্ষ বরণ উৎসব পালন করা হবে।

বণার্ঢ্য, সুশৃঙ্খল ও আনন্দঘন এসব অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে সারা বিশ্বে দেশ ও সরকারের উজ্জল ভাবমুর্তি ছড়িয়ে দেয়া হবে। এই উৎসবের মাধ্যমে প্রমাণ করে দেয়া  হবে পাবনাই শেষ্ঠ।

রবিবার সকালে পাবনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪২৩ উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমুলক  সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে সভায় এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ সুপার মো. আলমগীর কবির, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, এ্যাড. গোলাম হাসনায়েন, চন্দন কুমার চক্রবর্তী, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মো. কামরুজ্জামান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাবিবুর রহমান হাবিব,  অতিরিক্ত জেলা প্রসাশক মুন্সী মো: মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রসাশক মুহা.আব্দুর রফিক, শিক্ষা প্রকৌশলীর নিবার্হী প্রকৌশলী আটম মারুফ আল ফারুক,  বিভিটি প্রতিনিধি এবং পাবনা সংবাপত্র পরিষদের সভাপতি অধ্যক্ষ(অব:) আব্দুল মতীন খান, বাসস ও ভোরের কাগজ প্রতিনিধি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সুইট, বেতার প্রতিনিধি সুশীল তরফদার, চ্যানেল ২৪ প্রতিনিধি শাহীনুর রহমান, এনডিসি মো. সোলেমান আলী, সরকারি এডওয়ার্ড কেেজর সহযোগী অধ্যাপক মো. আশরাফ উদ্দিন, সরকারি টিটি কলেজের উপাধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ, সরকারি মহিলা কলেজের সহকারি অধ্যাপক আব্দুর রব ।

পাবনা পুলিশ সুপার বলেন- উৎসব অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা যথাযথ ভাবে দেয়া হবে তারপরও সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সকল প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে একত্রিত হয়ে বাংলা বর্ষ বরণ উৎসব পালন করবে।